৬ দিন বেশী ছুটি পায় অধূমপায়ীরা

৬ দিন বেশী ছুটি পায় অধূমপায়ীরা

আমরা জানি ধূমপান.. মানে বিষপান। তারপরেও অনেকে সবকিছু জেনেশুনেই ধূমপান করে থাকে।  সেটা হোক বাসায়, রাস্তাঘাটে কিংবা অফিসে।

ধূমপানে যেমন স্বাস্থ্যহানি ঘটে তেমনি সময়েরও অপচয় হয়। ধূমপায়ীরা দিনে গড়ে ১ ঘন্টা সময় শুধু এ সংক্রান্ত কাজ নিয়েই ব্যস্ত থাকে।

আর এ বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে অধূমপায়ী কর্মীদেরকে অতিরিক্ত ৬ দিন বেশী ছুটি দিচ্ছে একটি জাপানি কোম্পানি  । প্রতিষ্ঠানটির নাম পিয়ালা ইনকর্পোরেশন। বিগত ২০১৭ সালের নভেম্বরে এই নিয়ম চালু করে প্রতিষ্ঠানটি।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালে প্রতিষ্ঠানটির এক অধূমপায়ী কর্মী অভিযোগ করেন,  ধূমপায়ী কর্মীরা ধূমপানে প্রচুর সময় নষ্ট করেন আর তাদের জন্য অনেক কাজ আটকিয়ে থাকে কারণ তারা ধূমপানের জন্য নীচের বেসমেন্টে চলে যান। বাস্তবে কোম্পানিটির অফিস একটি ভবনের ২৯ তলায় অবস্থিত, মানে ধূমপায়ী কর্মীরা ধূমপান করতে ২৯ তলা নীচের বেসমেন্টে নেমে থাকে।

ওই অধূমপায়ী কর্মী আরও দাবি করেন, অধূমপায়ী কর্মীরা ধূমপায়ী কর্মীদের তুলনায় বেশি কাজ করেন তাহলে ধূমপায়ী কর্মীদের চেয়ে সুযোগ সুবিধা পাওয়া অধূমপায়ী কর্মীদের অধিকার।

এরপরই কোম্পানিটি একটি জরিপ পরিচালনা করে, আর এতে দেখা যায় যে, যদি কোন কর্মী একবারের জন্যও যদি ধূমপান করে থাকেন তাহলে ২৯ তলা নীচের বেসমেন্টে নামা-উঠা ইত্যাদি মিলিয়ে ১৫ মিনিট সময় ব্যয় হয়।  এমতাবস্থায় কর্মীদের মধ্যে অসন্তোষ নিরসনে অধূমপায়ী কর্মীদেরকে অতিরিক্ত ৬ দিন বেশী ছুটি দেবার সিদ্ধান্ত নেয় প্রতিষ্ঠানটি।

এ বিষয়ে পিয়ালা ইনকর্পোরেশনের সিইও তাকাও আশুকা বলেন,  কর্মীদেরকে শাস্তির বদলে ধূমপান ছাড়তে উৎসাহিত করার জন্য এই পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

বস্তুত এই জাপানি কোম্পানিটি দেখিয়ে দিয়েছে একই সাথে কিভাবে একটি প্রতিষ্ঠান তার কর্মীদের মধ্যে ধূমপান বিরোধী সচেতনতা সৃষ্টি করতে পারে পাশাপাশি কর্মীদের অসন্তোষ নিরসনে একটি কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়া যেতে পারে।

হয়তবা এই ঘটনাতে অনুপ্রাণিত হয়ে অদূর ভবিষ্যৎতে কোন বাংলাদেশী প্রতিষ্ঠানও ধূমপান বিরোধী সচেতনতা সৃষ্টি করতে এরকম পদক্ষেপ নেবে, এই প্রত্যাশাই রইল।

Please follow and like us:

Post Reads: 1193 Times

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *