৫ হাজার বছর আগেকার মানুষের চেহারা!

৫ হাজার বছর আগেকার মানুষের চেহারা!

আমরা মানুষের চেহারা দেখেই একজনকে চিনে থাকি। কিন্তু আপনার সামনে যদি  ৫৩০০ বছর আগেকার মানুষের চেহারা উপস্থাপন করে একটি মমির সাথে মিলাতে বলা হয় , তাহলে আপনি সেটা কিভাবে করবেন? কাজটা একটু উদ্ভট, তাই না…

আর এই উদ্ভট কাজটা করতে চেষ্টা চালাচ্ছেন একদল প্রত্নতত্ত্ববিদ।অনেক প্রচেষ্টার পর তৈরী করেছেন একটি ৫৩০০ বছর আগেকার মমির চেহারার আনুমানিক অবয়ব।

যেটি কোন সাধারণ মমি নয়, জগতজোড়া খ্যাতি পাওয়া ‘ওৎজি দ্য আইসম্যান’ মমির।  অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে এই কাজটি করা হয়েছে।

৫ হাজার বছর আগেকার মানুষের চেহারা!

১৯৯১ সালে ইউরোপের আল্পস পর্বতমালার হিমবাহের পাশে ওটজালে এই মমির সন্ধান পাওয়া যায়। এই মানব মমিটি প্রাকৃতিক ভাবে সংরক্ষিত একটি মমি।

৫ হাজার বছর আগেকার মানুষের চেহারা!

ওৎজি হিমবাহের পাশেই মারা যান, সেখানেই ৫ হাজার বছর ধরে মৃতদেহ সংরক্ষিত ছিল। বর্তমানে মমিটিকে বায়ু-নিরুদ্ধ কক্ষে রাখা হয়েছে।

৫ হাজার বছর আগেকার মানুষের চেহারা!

গবেষকদের মতে, খ্রিস্টপূর্ব ৩৩৭০ থেকে ৩১০০ শতাব্দীতে পৃথিবীতে বাস করতেন এই প্রাচীন মানব।

৫ হাজার বছর আগেকার মানুষের চেহারা!

ইতিমধ্যে ‘ওৎজি দ্য আইসম্যান’ এর রক্ত, পড়নের পশমের চামড়ার কোট, ছাগলের চামড়ার পোশাক, শিকারের কাজে ব্যবহৃত অস্ত্র ইত্যাদি উদ্ধার করা হয়েছে।

৫ হাজার বছর আগেকার মানুষের চেহারা!

বর্তমানে মমিটিকে নিয়ে বিস্তর গবেষণা চলছে।

Please follow and like us:

Post Reads: 1161 Times

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *