৩৫ বছর পর সৌদি আরবে প্রদর্শিত হতে যাচ্ছে সিনেমা

৩৫ বছর পর সৌদি আরবে সিনেমা প্রদর্শিত হতে যাচ্ছে । সৌদি আরবের মানুষ সর্বশেষ সিনেমা দেখেছিলেন ১৯৭০ সালে। সে সময় দেশটির কট্টরপন্থী ধর্মীয় নেতাদের চাপে সিনেমা হলগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। ৩৫ বছরর ধরে সেখানে কোন সিনেমা হল ছিল না। সাড়ে তিন দশক পর সৌদি আরবের মানুষ আবার ১৮ই এপ্রিল থেকে মারভেলের সুপারহিরো অ্যাকশন মুভি ‘ব্ল্যাক প্যানথার’ দিয়ে হলে গিয়ে সিনেমা দেখতে শুরু করবেন। সৌদি তথ্য মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সিনেমা প্রদর্শন শুরুর তারিখসহ এসব তথ্য জানানো হয়েছে। রাজধানী রিয়াদের কিং আবদুল্লাহ ফিন্যান্সিয়াল জেলায় গানের কনর্সাটের জন্য বানানো একটি হলে প্রথম এই সিনেমা প্রদর্শন করা হবে।এই হলে পাঁচশটি আসন থাকবে। এবার গ্রীষ্মেই আরও তিনটি পর্দা যুক্ত হবে।

সৌদি আরবের প্রধান আর্থিক তহবিল পাবলিক ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড সিনেমা প্রদর্শনের জন্য বিশ্বের সবচাইতে বড় সিনেমা হল চেইন আমেরিকান মুভি ক্লাসিক বা এএমসির সাথে চুক্ত সই করেছে। এই চুক্তি অনুযায়ী, দুই পক্ষ আগামী পাঁচ বছরে সৌদি আরবের ১৫টি শহরে ৪০টি সিনেমা হল বা প্রেক্ষাগৃহ নির্মাণ করবে। এর পরের সাত বছরে ২৫টি শহরে ৫০ থেকে একশটি সিনেমা হল নির্মাণ করবে। সৌদি জনগোষ্ঠীর একটা বড় অংশ পশ্চিমা সংস্কৃতির প্রতি আগ্রহী। তারা অনেক আগে থেকেই স্যাটেলাইট টেলিভিশন, মোবাইল ফোন সহ বিভিন্নভাবে পশ্চিমা অনুষ্ঠান দেখে থাকেন।

Please follow and like us:

Post Reads: 52 Times

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *