স্মৃতিসৌধে স্বাধীনতার স্মরণে লাখো মানুষের ঢল

প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

স্বাধীনতার ৪৭তম বার্ষিকীতে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে লাখো জনতার ঢল নেমেছিল। মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে জাতির বীর সন্তানদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
গতকাল সোমবার ভোর ৬টা ১মিনিটে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে উপস্থিত হয়ে ফুল দিয়ে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় বিউগলে বেজে ওঠে করুণ সুর। সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর সু-সজ্জিত একটি চৌকশদল গার্ড অব অনার প্রদান করে। শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী সেখানে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন। এ সময় মন্ত্রী পরিষদ সদস্য, বিচারপতি, তিন বাহিনীর প্রধানসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর পর স্পিকার, বিরোধী দলীয় নেত্রী রওশন এরশাদ শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগ সভানেত্রী হিসেবে দলীয় নেতাদের সঙ্গে নিয়ে স্মৃতিসৌধে ফুল দেন।
১৯৭১ সালের এই দিনে পাকিস্থানি দখলদার বাহিনীর দমন অভিযানের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলো পূর্ব পাকিস্থানের বাঙালিরা। বরাবরের মতোই রাষ্ট্রীয়ভাবে দিনটিকে পালন করা হচ্ছে জাতীয় দিবস হিসেবে। শহীদদের বেদিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেন, জাতিসংঘ ঘোষিত উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা লাভ প্রমাণ করে স্বাধীনতার ৪৭ বছরে দেশ কতটা এগিয়েছে। এখনও যেসব স্বাধীনতা বিরোধী সোচ্চার রয়েছে তাদের মূলোৎপাটন করা হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। বিএনপিকে জঙ্গিবাদের ‘প্রধান পৃষ্ঠপোষক’ আখ্যায়িত করে সা¤প্রদায়িক অপশক্তি ও স্বাধীনতাবিরোধীদের প্রতিরোধের আহ্বান জানিয়েছেন। সকাল সাড়ে ৬টার দিকে প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী স্মৃতিসৌধ ত্যাগ করার পর মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, বিদেশি কূটনীতিক, বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনসহ সর্বস্তরের জনগণের শ্রদ্ধা নিবেদন পর্ব শুরু হয়। এদিকে অন্যান্যবার সূর্য ওঠার আগেই জাতীয় স্মৃতিসৌধে সাধারণ মানুষ ভিড় জমাতে শুরু করলেও এবারের চিত্র ছিল ভিন্ন। লোক সমাগম ছিল খুবই কম। তবে বেলা বাড়ার সাথে সাথে সাধারণ দর্শনার্থীর সংখ্যাও বাড়তে থাকে।
সকালে শহীদদের বেদিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু সাংবাদিকদের বলেছেন, বাংলাদেশ এখনো আশঙ্কামুক্ত হয়নি। কারণ, দেশে পাকিস্থানি শক্তি প্রক্সি খেলায় মেতে উঠেছে। তিনি বলেন, ২৫ মার্চ ছিলো গণহত্যা দিবস। দেশের সব সংগঠন গণহত্যা দিবসে কর্মসূচি দিলেও বিএনপি কোনো কর্মসূচি দেয়নি। এরা জাতির পিতা, গণহত্যা দিবস ও ৩০ লাখ শহীদের সংখ্যা মানে না। এর পাকিস্থানি আদর্শে চলে। তিনি আরো বলেন, আমরা এখনো জঙ্গিবাদ ও স্বাধীনতাবিরোধী শক্তির জন্য নিরাপদ হতে পারেনি। জঙ্গিবাদ ও রাজাকার যেমন দেশের শত্রæ, তার চেয়েও বড় শত্রæ তারা। মন্ত্রী বলেন, আমাদের সামনে দুটি বড় চ্যালেঞ্জ। একটি হলো সঠিক সময়ে নির্বাচন এবং অপরটি হলো জঙ্গিবাদ ও রাজাকার লালনকারী দল বিএনপিকে ক্ষমতার বাইরে রাখা। এদিকে সকাল পৌনে ১০টার দিকে বিশাল শোডাউন নিয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এসময় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান আমান উল্লাহ আমান, ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি ডা. দেওয়ান সালাউদ্দিন বাবু উপস্থিত ছিলেন। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদিকদের বলেছেন, যে গণতন্ত্র রক্ষার জন্য মুক্তিযুদ্ধ হয়েছিল, তা এখন অবরুদ্ধ। তিনবারের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী এখন জেলখানায় আটক। মানুষের বাক স্বাধীনতা নেই। রাজনীতি করার অধিকার নেই। কোথাও গণতন্ত্র নেই। আমরা গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার লড়াই করছি, গণতন্ত্র ফিরে না আসা পর্যন্ত লড়াই চলবেই। বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেছেন, অনেক দাম দিয়ে পাওয়া স্বাধীনতা। সেই স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি দীর্ঘদিন আমাদের ঘাড়ে চেপে বসেছিল। আমরা তাদের পরাজিত করে বিচারের আওতায় এনেছি। আশা করি, সামনের দিনগুলোতে বিচার প্রক্রিয়া এগিয়ে যাবে। তিনি আরো বলেন, এ দেশের মানুষের মুক্তির যে আকাঙ্খা, দারিদ্র থেকে, ক্ষুধার জ্বালা থেকে মুক্তির জন্য মানুষ সামনের দিকে তাকিয়ে এগিয়ে চলেছে এবং আরো এগিয়ে যাবে। পরে পর্যায়ক্রমে জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন, কৃষিবিদ ইনিষ্টটিউট বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, জাতীয়তাবাদী সেচ্ছাসেবক দল, বাংলা একাডেমি, শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, হলিফ্যামিলি রেডক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল, জাসদ, সিপিবি, ওয়ার্কার্স পার্টি, বাসদ, সাম্যবাদী দল, বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টাস এসোসিয়েশন (্ক্র্যাব), ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন, ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটি, সাভার প্রেসক্লাব, আশুলিয়া প্রেসক্লাব, গণতন্ত্রী পার্টি, গণফোরাম, জাতীয় পার্টি, যুবলীগ, ঢাকা জেলা ছাত্রদল, যুবদল, যুব ইউনিয়ন, শিল্প পুলিশ-১, ছাত্রলীগ, ছাত্র ইউনিয়ন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট, কৃষক লীগ, কৃষক দল, কৃষক সমিতি, ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটি, বঙ্গবন্ধু সংসদ, সাভার থানা বিএনপি, মহিলা পরিষদ, ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রসহ বিভিন্ন সংগঠন পুষ্পার্ঘ অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা জানায় শহীদদের প্রতি। একই সাথে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, সেক্টর কমান্ডারস ফোরামসহ মুক্তিযোদ্ধাদের বিভিন্ন সংগঠন ছাড়াও আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, মুক্তিযোদ্ধা ছাত্র কমান্ড, বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর, জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক সংসদ (জাসাস), বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট, জাতীয়তাবাদী আইনজীবি ফোরাম, জাতীয় শ্রমিক লীগ, ডিপ্লোমা কৃষিবিদ ইনষ্টিটিউট বাংলাদেশ, বিকল্পধারা বাংলাদেশ, জাতীয় পার্টি, ঢাকা জেলা ছাত্রদল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠেী, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, গণবিশ্ববিদ্যায়, সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি (সনাক)সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক সামাজিক ও সেচ্ছাসেবী সংগঠন।
চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, চট্টগ্রামে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষ্যে বিভাগীয় ও জেলা প্রশাসন, আওয়ামী লীগ ও বিএনপি উদ্যোগে আয়োজন করা হয় নানা অনুষ্ঠানমালার। নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয় শিশু-কিশোরদের কুচকাওয়াজ। এতে সালাম গ্রহণ করেন বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আবদুল মান্নান। কুচকাওয়াজ শেষে মনোজ্ঞ ডিসপ্লে প্রদর্শন করা হয়। কুচকাওয়াজে অংশ নেয় পুলিশ, আনসার সদস্যরা তাদের বাদ্য দল, নগরী ও জেলার শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানের সহ¯্রাধিক শিক্ষার্থী।
যশোর ব্যুরো জানায়, যশোরে বিজয় স্তম্ভে শ্রদ্ধা নিবেদনসহ নানা কর্মস‚চির মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে মহান স্বাধীনতা দিবস। সোমবার ভোর ৬টায় শহরের মনিহার বাস স্ট্যান্ড সংলগ্ন বিজয় স্তম্ভে ফুল দেন জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল। এরপর পুলিশ সুপার, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীসহ নানা শ্রেনী পেশার মানুষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
রাজশাহী ব্যুরো জানায়, সকালে সিটি মেয়র মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের নেতৃত্বে নগরভবন হতে র‌্যালি বের করে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে ভূবনমোহন পার্ক শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পন করা হয়। মুক্তিযুদ্ধে জীবন উৎসর্গকারী ও অংশগ্রহণকারী সকল মুক্তিযোদ্ধাদের আতœার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করেন সোনাদিঘি জামে মসজিদের হাফেজ মোঃ দেলোয়ার হোসেন। বিকেলে রাজশাহী মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি ষ্টেডিয়ামে মেয়র রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন একাদশ বনাম বিভাগীয় কমিশনার রাজশাহী একাদশের মধ্যে প্রীতি ফুটবল প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।
বরিশাল ব্যুরো জানায়, সকালে সূর্যোদয়ের সময় বরিশাল পুলিশ লাইন্সে একত্রিশবার তোপধ্বনির মাধ্যমে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা প্রচার করা হয়। একই সময় বিভিন্ন সরকারীÑবেসরকারী ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকাল বরিশালের বঙ্গবন্ধু উদ্যানে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও পুলিশ, আনসার, বিএনসিসি স্কাউট ও গার্লগাইডস সহ বিভিন্ন শিশুÑকিশোর সংগঠনের আনুষ্ঠানিক কুচকাওয়াজে ছালাম গ্রহন করেন বিভাগীয় কমিশনার।
নোয়াখালী ব্যুরো জানায়, মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আওয়ামীলীগের উদ্যোগে চৌমুহনীতে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালীতে নেতৃত্ব দেন জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও সমাজসেবী মিনহাজ আহমেদ জাবেদ। এরপর র‌্যালীটি চৌমুহনীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে । র‌্যালিপূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন আওয়ামীলীগ নেতা মিনহাজ আহমেদ জাবেদ।
বেনাপোল অফিস জানায়, সকালে বীরশ্রেষ্ঠ শেখ নুর মোহাম্মদের সমাধিস্থলে পুষ্পস্তবক অর্পন, সশস্ত্র সালাম প্রদান করেণ বিজিবি’র ৪৯ ব্যাটালিয়নের উপ-অধিনায়ক মেজর নজরুল ইসলাম। এদিকে শার্শা স্টেডিয়ামে স্থানীয় সংসদ সদস্য শেখ আফিল উদ্দিন বীর, বেনাপোল বলফিল্ড মাঠে পৌর সভার মেয়র আশরাফুল আলম লিটনের নেতৃত্বে শহীদদের স্বরণে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, কুচকাওয়াজ, আলোচনা সভা, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান
দিনাজপুর অফিস জানায় শহীদদের স্বরণে প্রথমেই শ্রদ্ধাঞ্জলী অর্পন করেন জাতীয় সংসদের হুইপ ও দিনাজপুর-৩ আসনের এমপি ইকবালুর রহিম। তার পরপরই জেলা প্রশাসক ড. আবু নঈম মুহাম্মদ আবদুছ ছবুর ও পুলিশ সুপার হামিদুল আলমসহ বিভিন্ন সরকারী ও বেসরকারী সংগঠন পূষ্পার্ঘ্য অর্পন করেন। হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসি প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম-এর নেতৃতে স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালী ও শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন।
ময়মনসিংহ ব্যুরো জানায়, বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে স্বাধীনতা দিবসের কুচকাওয়াজ উদ্বোধন করেন ধর্মমন্ত্রী প্রিন্সিপাল মতিউর রহমান। কুচকাওয়াজে সালাম গ্রহণ করেন ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার জি.এম.সালেহ্ উদ্দিন, রেঞ্জ ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি, জেলা প্রশাসক (ডিসি) ড.সুবাস চন্দ্র বিশ্বাস ও জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) সৈয়দ নুরুল ইসলাম। কুচকাওয়াজ শেষে শারিরীক কসরত প্রদর্শন করে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা।
নওগাঁ জেলা সংবাদদাতা জানান, প্রথম প্রহর সুর্যোদয়ের সাথে সাথে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি স্তম্ভে পু®প স্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে জেলা প্রশাসক ড. মোঃ মিজানুর রহমান, পুলিশ সুপার মোঃ ইকবাল হোসেনসহ, বিভিন্ন সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠান, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দল শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন।
সরকার আদম আলী, নরসিংদী থেকে জানান, নরসিংদী স্টেডিয়ামে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের গালর্স গাইড, রোভার স্কাউট, পুলিশ আনসার, ভিডিপি সমন্বয়ে অনুষ্ঠিত প্যারেড ও কুচকাওয়াজে সালাম গ্রহণ করেন নরসিংদী জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন ও পুলিশ সুপার সাইফুল্লাহ আল-মামুন।
নাটোর জেলা সংবাদদাতা জানান, নাটোর সংকর গোবিন্দ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বেলুন ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে স্বাধীনতা দিবসের অন্যতম আকর্ষণ কুঁচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নাটোর ২ আসনের সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল, জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুন, পুলিশ সুপার বিপ্লব বিজয় তালুকদারসহ জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, সাংবাদিক এবং সর্বস্তরের জনসাধারণ।
ল²ীপুর সংবাদদাতাজানান, ৩১ বার তোপধ্বনি মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিফলকে পুস্পার্ঘ্য অর্পন করেন ল²ীপুর বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল, জেলা প্রশাসক অঞ্জন চন্দ্র পাল, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ শাহাজান, পুলিশ সুপার আ স ম মাহাতাব উদ্দিন, জেলা আওয়ামীলীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ।
মাগুরা জেলা সংবাদদাতা জানান, সকল সরকারি বেসরকারি ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্বে পুস্পমাল্য অর্পণ, মাগুরা আছাদুজ্জামান স্টেডিয়ামে পুলিশ, আনসার, ভিডিপি, রোভার স্কাউট, গার্লস গাইটসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র- ছাত্রী, মুক্তিযোদ্ধাদের কুজকাওয়াজে জেলা প্রশাসক মোঃ আতিকুর রহমান ও পুলিশ সুপার খান মুহম্মাদ রেজোয়ান কতৃক সালাম গ্রহন ও শরীর চর্চা প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়।
মানিকগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা জানান, শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন,মুক্তিযোদ্ধা সংগঠন,শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ নানা সংগঠন রাজনৈতিকদল। এর পর শহীদ মিরাজ-তপন স্টেডিয়ামে দেশব্যাপী একযোগে জাতীয় সংগীত গাওয়া হয়। সেখানে শুরু হয় নানা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কুচকাওয়াজ ও পালিত হয় রক্ত দান কর্মসূচী।
মেহেরপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, সকাল ৯টায় সমাবেশ ও বর্ণাঢ্য মিছিলের আয়োজন করে। মেহেরপুর জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সংসদ মাসুদ অরুন এর নেতৃত্বে শহর প্রদক্ষিণ শেষে শহীদবেদীতে শ্রদ্ধাঞ্জলী জানিয়ে পুস্পার্ঘ অর্পণ করেন।
মৌলভীবাজার জেলা সংবাদদাতা জানান, মৌলভীবাজারের শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য সৈয়দা সায়রা মহসীন, জেলা প্রশাসন, পুলিশ সুপার, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, মৌলভীবাজার পৌরসভা, মৌলভীবাজার প্রেসক্লাব, আওয়ামলীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। সকালে মৌলভীবাজার স্টেডিয়ামে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা ঊত্তোলন করেন জেলা প্রশাসক মোঃ তোফায়েল ইসলাম।
ফরিদপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, সকল সরকারি ও বেসরকারি ভবন শীর্ষে জাতীয় পতাকা উত্তোলণ, শহরের গোয়ালচামট পুরনো বাসস্ট্যান্ড এলাকার শহীদ স্মৃতি ফলকে জেলা প্রশাসন,পুলিশ বিভাগ,আওয়ামীলীগ ও বিএনপিসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন এবং পেশাজীবী সংগঠনের পক্ষ থেকে পুস্প্যমাল্য অর্পণ করা হয়।
ঝিনাইদহ জেলা সংবাদদাতা জানান, ঝিনাইদহ জেলা ও পুলিশ প্রশাসন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ, জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি, স্বস্থ্য বিভাগ, পৌরসভা, সরকারী অফিস এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন শহরে র‌্যালি ও ঝিনাইদহ মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্তম্ভে শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করে। চাঁদপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, সুর্যোদয়ের সাথে সাথে মুক্তিযুদ্ধের স্মারক ভাস্কর্য অঙ্গীকারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান জেলা প্রশাসক মাজেদুর রহমান খান, পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার, জেলা আওয়ামী লীগের, বিএনপিরসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্নস্তরের সাধারণ মানুষ।
নেত্রকোনা জেলা সংবাদদাতা জানান, সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে স্মৃতিসৌধে ও পরে সাতপাই স্মৃতিসৌধে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন জেলা প্রশাসক মঈনউল ইসলাম, পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের, বিএনপিরসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করে।
আড়াইহাজার (নারায়ণগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, সোমবার সকাল সাড়ে সাতটায় মুক্তিযুদ্ধ অস্থায়ী স্মৃতিফলকে পুস্পার্ঘ্য অর্পণ করেন সংসদ সদস্য আলহাজ নজরুল ইসলাম বাবু, জেলা আওয়ামী লীগের, বিএনপিরসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ।
আরিচা সংবাদদাতা জানান, শিবালয় উপজেলা প্রশাসন, সদরউদ্দিন ডিগ্রী কলেজসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন পৃথক আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। মানিকগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য এএম নাঈমুর রহমান দুর্জয় এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।
বামনা(বরগুনা)উপজেলা সংবাদদাতা জানান, বরগুনার বামনায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ জাকির হোসেন বাচ্চুর সভাপতিত্বে বামনা সৈয়দ রহমত আলী স্টেডিয়ামে প্রধান অতিথি হিসেবে ভাষণ প্রদান করেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ সাইতুল ইসলাম লিটু।
বাকৃবি সংবাদদাতা জানান, সূর্যোদয়ের সাথে সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিস, আবাসিক হল এবং ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলণ করা হয়। সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টেডিয়ামে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দিনব্যাপী নানা কর্মসুচীর উদ্বোধন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আলী আকবর ।
বোয়ালখালী (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা জানান, প্রেসক্লাব বোয়ালখালী’র নেতৃবৃন্দ উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এসময় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো. সিরাজুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক দৈনিক ইনকিলাব উপজেলা সংবাদদাতা এম এস এমরান কাদেরীসহ প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।
চাটখিল (নোয়াখালী) সংবাদদাতা জানান, পি.জি. সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, ভীমপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও কারিগরি কলেজ, চাটখিল কামিল মাদ্রাসা, চাটখিল মহিলা ডিগ্রী কলেজসহ সকল প্রতিষ্ঠানে যথাযথ মর্যাদায় স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত হয়েছে।
গোদাগাড়ী (রাজশাহী) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, ভোরের প্রথম প্রহরে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন গোদাগাড়ী উপজেলা পরিষদ কেন্দ্রীয় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. ইসহাক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. জাহিদ নেওয়াজসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতা, প্রতিষ্ঠান প্রধান, শিক্ষকÑ শিক্ষিকা ছাত্রÑছাত্রীসহ বিভিন্ন পেশার মানুষ।
ধামরাই(ঢাকা)উপজেলা সংবাদদাতা জানান, ধামরাইয়ের ঐতিহ্যবাহী হার্ডিঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজ মাঠে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবুল কালামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি স্থানীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ এম এ মালেকের উপস্থিতিতে জাতীয় সংগীত পরিবেশন, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রীদের দৃষ্টিনন্দন কুচকাওয়াচ, শারীরিক কসতর প্রদর্শিত হয়।
গফরগাঁও উপজেলা সংবাদদাতা জানান, সকালে গফরগাঁও ইসলামিয়া সরকারী হাই স্কুল প্রাঙ্গনে কুচকাওয়াজ প্রতিযোগিতায় আয়োজন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল ।
গলাচিপা (পটুয়াখালী)উপজেলা সংবাদদাতা জানান, সকালে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্থম্ভে পুস্পমাল্য অর্পনের পর প্রশাসনের উদ্যোগে বাংলাদেশ-তুরষ্ক ফ্রেন্ডশীপ স্কুল প্রাঙ্গন থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌছিফ আহমেদ’র সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
গোবিন্দগঞ্জ (গাইবান্ধা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, স্থানীয় শহীদ মিনারে পূস্পস্তবক অর্পন করেন উপজেলা প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা কমাান্ড, আওয়ামীলীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন।
হিলি সংবাদদাতা জানান, স্থানীয় প্রশাসন, বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন, মুক্তিযোদ্ধা, শিক্ষা প্রতিষ্টান, সাংকৃতিক সংগঠন শহীদদের শ্বরনে সন্মুখসমরে পুস্প স্তবক অর্পণ করেন।
ঈশ্বরদী (পাবনা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, ঈশ্বরদীতে ব্যাতিক্রমী বিশাল শো-ডাউন করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম লিটন।
কালকিনি (মাদারীপুর) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, সকালে কালকিনিতে জাতীয় সংগীতের মধ্যেদিয়ে কর্মসূিচর শুরু করে পুলিশ, আনসার, বিএনসিসি, স্কাউটসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহনে কুচকাওয়াজ ও ডিসপ্লে করা হয়।
কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, কমলগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং দুপুর সাড়ে ১২টায় কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হকের সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
কোটালীপাড়া উপজেলা সংবাদদাতা জানান, উপজেলা নিবাহী অফিসার এসএম মাহফুজুর রহমান এর সভাপতিত্বে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, বিশেষ মোনাজাত, আলোচনা সভা, কুজকাওয়াজ, পুরস্কার বিতরণ ও মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা প্রদানের মাধ্যমে দিবসটি পালন করা হয়।
কুলিয়ারচর (কিশোরগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ড. উর্মি বিনতে সালাম এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভা, বাদ জোহর মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের মাগফেরাত কামনা করে বিভিন্ন মসজিদ, মন্দিরে বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা করা হয়।
নেছারাবাদ (পিরোজপুর)উপজেলা সংবাদদাতা জানান, পুষ্পস্তবক অর্পন, বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা প্রদান, শিক্ষার্থীদের কুচকাওয়াজসহ নানা কর্মসুচি পালিত হয়েছে। পরে ইউএনও আবু সাঈদের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
নীলফামারী সংবাদদাতা জানান, সকালে একই মাঠে আনুষ্টানিক ভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও কুচকাওয়াজের সালাম গ্রহণ করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খালেদ রহীম ও পুলিশ সুপার মোঃ আশরাফ হোসেন।
পাবনা জেলা সংবাদদাতা জানান, জেলা প্রশাসন, পুলিশ, র‌্যাব, আনসার- ভিডিপি, জেলা আওয়ামীলীগ ও, বিএনপিসহ বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠন মহান স্বাধীনতা দিবসে দুর্জয় পাবনার বেদীতে ফুল দিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে।
ফুলবাড়ী(দিনাজপুর) সংবাদদাতা জানান, সকাল ৯টা থেকে দুপুর পর্যন্ত ফুলবাড়ী সরকারি কলেজ মাঠে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে কুচকাওয়াজ, ক্রীড়া প্রতিযোগীতা ও মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবদুস সালাম চৌধুরী।
ফুলপুর (ময়মনসিংহ)উপজেলা সংবাদদাতা জানান, ফুলপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রাশেদ হোসেন চৌধুরীর সভাপতিতে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে বিকালে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবার, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে।
পীরগাছা (রংপুর) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, সকালে উপজেলার নব্দীগঞ্জে বধ্যভূমি স্মৃতি সৌধে শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে পু®পস্তবক অর্পণ করা হয়।
রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) সংবাদদাতা জানান, সারাদেশের ন্যায় ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে ছাত্র ছাত্রীদের কুচকাওয়াজ, বিভিন্ন ডিসপ্লে অনুষ্ঠিত হয়।
আক্তারুজ্জামান বাচ্চু, সাতক্ষীরা থেকে জানান, সকাল ৮ টায় জেলা স্টেডিয়ামে সাতক্ষীরা সদর-০২ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইফতেখার হোসেন ও জেলা পুলিশ সুপার মো. সাজ্জাদুর রহমান বেলুন ও ফেস্টুন ও শান্তির প্রতিক কবুতর অবমুক্ত ও সালাম গ্রহণ করেন।
শরীয়তপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, জেলাবাসীর পক্ষ থেকে প্রথমে জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের শহীদ মিনারে পুস্প স্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে পর্যায়ক্রমে পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন, বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষ্যে উপজেলা প্রশাসন, আ’লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, জাকের পার্টিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সাংস্কৃতিক গোষ্ঠি, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পৃথক পৃথক কর্মসূচির মাধ্যমে দিবসটি পালন করেন।

Please follow and like us:

Post Reads: 192 Times

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *