স্বর্ণদ্বীপ বাংলাদেশের সিঙ্গাপুর হওয়ার উজ্জল সম্ভাবনা

নোয়াখালীর স্বর্ণদ্বীপকে বিরাট সম্ভাবনা উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, পরিকল্পিত পদক্ষেপ নিলে এই দ্বীপ জাতীয় অর্থনীতিতে বড় ধরনের অবদান রাখবে।

আয়তনের দিক থেকে প্রায় সিঙ্গাপুরের সমান এবং সমুদ্রের সন্নিকটে এই দ্বীপকে সুন্দরভাবে সাজাতে পারলে ভবিষ্যতে এটি বাংলাদেশের সিঙ্গাপুর হয়ে যেতে পারে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। এসময় দ্বীপের চারপাশে বাঁধ দেওয়া দরকার বলে মত দেন তিনি।

শনিবার (২৪ মার্চ) রাষ্ট্রপতি নোয়াখালীর স্বর্ণদ্বীপ পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলপকালে এসব কথা বলেন।

দুপুরে হেলিকপ্টারে করে স্বর্ণদ্বীপ অবতরণ করেন রাষ্ট্রপতি। এরপর তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে এবং সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে নির্মাণাধীন ৩১ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। ২০১৯ সালের মাঝামাঝি সময়ে হাসপাতালটির নির্মাণকাজ শেষ হবে।

এরপর তিনি ৩৩ পদাতিক ডিভিশনের তত্ত্বাবধানে স্বর্ণদ্বীপে ম্যানুভার প্রশিক্ষণ এলাকার পরিকল্পিত ব্যবহার দেখে প্রশংসা করেন এবং স্বর্ণদ্বীপের প্রশিক্ষণ সুবিধা সেনাবাহিনীর দক্ষতা বৃদ্ধিতে তাৎপর্যপূর্ণ অবদান রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে পরিকল্পিত বনায়ন, উন্নত প্রজাতির নারিকেল বাগান, মিলিটারি ফার্ম পরিদর্শন করেন তিনি।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে সেনাবাহিনী প্রধান আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক, স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালিক, নোয়াখালীর জেলা প্রশাসক মো. মাহবুব আলম তালুকদার, পুলিশ সুপার মো. ইলিয়াছ শরীফ উপস্থিত ছিলেন।

Please follow and like us:

Post Reads: 331 Times

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *