• মঙ্গল. জানু. 25th, 2022

‘যদি একটা ভোটও কাটে, ওই ওয়ার্ডে পাঁচটা লাশ পড়বে’

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার পশ্চিম নবীনগর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে নৌকার বিরুদ্ধে গিয়ে জোর করে ভোট নিলে লাশ ফেলার হুমকি দিয়েছেন এক ছাত্রলীগ নেতা। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে ইউনিয়নের লাপাং উচ্চবিদ্যালয়ের মাঠে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থনে অনুষ্ঠিত সভায় প্রকাশ্যে এই বক্তব্য দেন আশরাফুল আলম নামের ওই ছাত্রলীগ নেতা।

আশরাফুল আলম নবীনগর উপজেলার পশ্চিম নবীনগর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি। তিনি ওই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান ফিরোজ মিয়ার ভাতিজা। তাঁর ওই বক্তব্যের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

এ বিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) মোল্লা মোহাম্মদ শাহীন প্রথম আলোকে বলেন, ‘বক্তব্যের ভিডিওটি আমাদের কাছে এসেছে। আমরা ছাত্রলীগের ওই নেতাকে খোঁজার চেষ্টা করছি। তবে তিনি গা ঢাকা দিয়েছেন।’ তিনি বলেন, এখানে ভয়ের কোনো কারণ নেই। কারণ, সুষ্ঠু নির্বাচন হবে। পুলিশ সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য কাজ করছে এবং নির্বাচনের দিন কাজ করবে। ভোটারদের ভয় পাওয়ার কোনো কারণ নেই।

স্থানীয় লোকজন ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, ২৮ নভেম্বর পশ্চিম নবীনগর ইউপিতে নির্বাচন হবে। এখানে চেয়ারম্যান পদে চারজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান ফিরোজ মিয়া। বৃহস্পতিবার রাতে নৌকা প্রতীকের সমর্থনে ইউনিয়নের লাপাং উচ্চবিদ্যালয়ের মাঠে এক সভার আয়োজন করা হয়। ওই সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী মোর্শেদ হোসেন কামাল।

Related Post