তরুণরা এখন ফেসবুকের বদলে স্ন্যাপচ্যাটের মতো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে ঝুঁকছে

ফেসবুক কি আর মানুষকে সেভাবে টানতে পারছে? ফেসবুক দিন দিন আকর্ষণহীন হয়ে পড়ছে। গত কয়েক বছরের তথ্য বিশ্লেষণ করলে দেখা যাবে, ফেসবুকে সক্রিয়তা অনেক কমে গেছে। এখন সেখানে শুধু ব্র্যান্ড আর চটকদার খবর। বন্ধু-পরিবারের মধ্যে যোগাযোগের যে আকর্ষণ, তা আর নেই।

তরুণ প্রজন্মের কাছে ফেসবুকের জনপ্রিয়তা কমছে। তাদের অনেকেই সোস্যাল মিডিয়া জায়ান্টটির প্লাটফর্ম থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন। কয়েক বছরের তথ্য বিশ্লেষণ করলে দেখা যাবে, ফেসবুকে সক্রিয়তা অনেক কমে গেছে। কারণ বন্ধু-পরিবারের মধ্যে যোগাযোগের যে আকর্ষণ তা আর নেই। এখন ফেসবুক বিজ্ঞাপনের প্লাটফর্ম হয়ে উঠেছে। তরুণদের মধ্যে ফেসবুকের জনপ্রিয়তা কমছে। বিশেষ করে যুক্তরাজ্যে। ফেসবুকের বদলে তরুণরা এখন ঝুঁকছে স্ন্যাপচ্যাটের মতো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। সম্প্রতি বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইমার্কেটার জানিয়েছে, চলতি বছর যুক্তরাজ্যের ১২-১৭ বছর বয়সের সামাজিক মাধ্যম ব্যবহারকারীদের ৭১ শতাংশ নিয়মিত ফেসবুক ব্যবহার করবে, যা গত বছরের পূর্বাভাসের চেয়ে ৮ শতাংশ কম। শিশুদের মধ্যে স্ন্যাপচ্যাট ব্যবহারের প্রবণতা বৃদ্ধির বিষয়টি উল্লেখ করে ইমার্কেটার জানিয়েছে, চলতি বছর যুক্তরাজ্যের সোস্যাল নেটওয়ার্ক ব্যবহারকারীদের মধ্যে ৪৩ শতাংশই স্ন্যাপচ্যাট ব্যবহার করবে, যা তিন বছর আগের চেয়ে দ্বিগুণ। গত বছর যুক্তরাষ্ট্রের ১২-১৭ বছর বয়সের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীদের মধ্যে ৬৮ দশমিক ৫ শতাংশ ফেসবুক ব্যবহার করেছে, যা ২০১৩ সালের চেয়ে ৯০ শতাংশ কম। অন্য দিকে, চার বছর আগে ২৯ শতাংশ স্ন্যাপচ্যাট করেছে, যা গত বছর ৮৯ শতাংশে পৌঁছেছে।

ইমার্কেটারের বিশ্লেষক বিল ফিশার জানিয়েছেন, শিশু কিংবা তরুণদের ফেসবুক ব্যবহারে উৎসাহিত করতে মেসেঞ্জার অ্যাপের বেশ কিছু সংস্করণ চালু করে প্রতিষ্ঠানটি। তার পরেও শিশু কিংবা তরুণদের মধ্যে স্ন্যাপচ্যাট ব্যবহারের প্রবণতা বাড়ছে। চলতি বছর যুক্তরাজ্যে ফেসবুক ব্যবহারকারী ৩ কোটি ২৬ লাখে পৌঁছবে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে। স্ন্যাপচ্যাট, ইনস্টাগ্রাম কিংবা টুইটারের চেয়ে দেশটিতে বেশি গ্রাহক রয়েছে ফেসবুকের। তবে তরুণদের মধ্যে জনপ্রিয়তা হারাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। স্ন্যাপচ্যাটের ব্যবহার সহজ করতে নতুন করে নকশা করেছে প্রতিষ্ঠানটি। এর ফলে ফেসবুকের চেয়ে স্ন্যাপচ্যাট তরুণ প্রজন্মের কাছে বেশি জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

Please follow and like us:

Post Reads: 184 Times

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *