ট্রাম্প, ফেইসবুক, কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা; আসলে কী ঘটেছে?

ব্যবহারকারীদের ডেটা অপব্যবহার করে ২০১৬ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফলাফলে প্রভাব ফেলা হয়েছে কিনা, তা নিয়ে নানা অভিযোগ আর ব্যাখ্যা থাকলেও বিষয়টি এখনও প্রমাণিত নয়।

পুরো বিষয়টি তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে এই প্রতিবেদনে।

কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা’র বিরুদ্ধে কীভাবে এলো অভিযোগ?

চ্যানেল ৪ নিউজ তাদের এক প্রতিবেদককে ডেটা বিশ্লেষণা প্রতিষ্ঠান কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা’র কর্মকর্তাদের সঙ্গে দেখা করতে পাঠায়। ২০১৬ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্প-এর জয়ী হওয়ার জন্য সহায়তার কৃতিত্ব পাওয়া কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা-এর কাছে ছদ্মবেশে যান ব্রিটিশ টিভি চ্যানেলটির ওই প্রতিবেদক। তিনি প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তাদের বলেন তিনি শ্রীলংকার একজন ব্যবসায়ী, তার চাওয়া হচ্ছে স্থানীয় একটি নির্বাচন প্রভাবিত করা।

এমন গ্রাহক পেয়ে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা’র প্রধান অ্যালেকজান্ডার নিক্স কীভাবে তার প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন ধরনের প্রচারণার মাধ্যমে রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বীদের সম্মানহানি করতে পেরেছে তার উদাহরণ দেখানো শুরু করেন। এসব উদাহরণের মধ্যে যৌনকর্মীদের দিয়ে মুখোমুখি করানো থেকে শুরু করে ক্যামেরায় ঘুষ নেওয়ার দৃশ্য ধরা পড়েছে এমন নাটক সাজানোর কথাও বলা হয়।

তবে, চ্যানেল ৪ নিউজ-এর ডকুমেন্টারিতে করা দাবিগুলো অস্বীকার করেছে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা। তাদের দাবি, এই ডকুমেন্টারি “এডিট করা” ও “একেবারেই শুধু ওই আলাপচারিতার প্রকৃতি তুলে ধরতে এটি আগে থেকে ঠিক করা ছিল।” এই আলাপচারিতা প্রতিবেদক নিজে চালিয়ে নিয়ে গিয়েছেন বলেও দাবি করা হয়।

নিক্স বলেন, “আমি অবশ্যই জোর দিয়ে বলতে চাই যে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা ফাঁদে ফেলা, ঘুষ বা তথাকথিত ‘মধুর ফাঁদ’ ফেলায় সম্পৃক্ত নয়, আর এটি কোনো উদ্দেশ্যেই কোনো অসত্য কনটেন্ট ব্যবহার করে না।”

ফেইসবুকের ভূমিকা কী?

Please follow and like us:

Post Reads: 276 Times

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *