এলএনজিবাহী আরও একটি জাহাজ বাংলাদেশে

গ্যাস সরবরাহে এলএনজিবাহি বিশেষায়িত জাহাজ

 

কাতার থেকে বাংলাদেশে এলএনজি রপ্তানি অব্যাহত রয়েছে। চলতি বছর শুরু হওয়া এই রপ্তানির ধারাবাহিকতায় দেড় লাখ ঘনমিটার এলএনজি (তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস) নিয়ে আরও একটি বড় জাহাজ বাংলাদেশে পৌছেছে।


১ ডিসেম্বর জাশাসিয়া নামে এলএনজিবাহী জাহাজটি কাতার থেকে বাংলাদেশে বঙ্গোপসাগরের মহেশখালী উপকূলে ভিড়েছে।এর আগে প্রথমবারের মতো এলএনজি আমদানির প্রথম চালান নিয়ে কাতার থেকে ‘এক্সিলেন্স’ নামের একটি জাহাজ গত ২৪ এপ্রিল কক্সবাজারের মহেশখালীর মাতারবাড়ীতে ভিড়ে। ওই জাহাজে এক লাখ ৩৬ হাজার ঘনমিটার তরল গ্যাস ছিল। এরপর গত ৮ সেপ্টেম্বর এক লাখ ৩৮ হাজার ঘনমিটার এলএনজি নিয়ে বাংলাদেশে পৌঁছে কাতারের পাঠানো দ্বিতীয় জাহাজ।পেট্রোবাংলা গত বছর কাতার থেকে এলএনজি আমদানির লক্ষ্যে একটি চুক্তি করে। চুক্তি অনুসারে কাতারের রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান ‘রাসগ্যাস’ ১৫ বছর ধরে প্রতি বছর ২৮ লাখ মেট্রিক টন করে এলএনজি বাংলাদেশে রপ্তানি করবে। এর দাম নির্ধারিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম অনুযায়ী।২০১০ সালে এলএনজি প্রকল্প গৃহীত হওয়ার পর গত ২০১১ সালের জানুয়ারি মাসে কাতার সরকারের সঙ্গে বাংলাদেশের বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয় প্রথমবারের মতো একটি সমঝোতা স্মারক সই করেন। এতে সে সময় বছরে প্রায় ৪০ লাখ মেট্রিক টন এলএনজি আমদানির কথা বলা হয়েছিল।এরপর ২০১৭ সালের ১৩ জুলাই ঢাকায় কাতারের রাসগ্যাসের সঙ্গে পেট্রোবাংলা একটি চুক্তিতে স্বাক্ষর করে।
এলএনজি টার্মিনাল নির্মাণের লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠান এক্সিলারেট এনার্জির সঙ্গে ২০১৬ সালে চুক্তি করে বাংলাদেশ। এর দুই বছরের মধ্যেই মহেশখালীর মাতারবাড়ীতে নির্মিত হয় এলএনজি টার্মিনাল।

Please follow and like us:

Post Reads: 66 Times

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *