আদালতের মাধ্যমে জারিকৃত অভিনব সাজা পদ্ধতি

১.কার্টুন দেখতে হবে

বেআইনীভাবে কয়েকশত হরিণ শিকারের অভিযোগ সত্য প্রমাণিত হওয়ায় কিছুদিন পূর্বে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মিসৌরি প্রদেশের বাসিন্দা ডেভিড বেরি জুনিয়রকে কারাদণ্ডের সাজা দেয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে তাকে আদেশ দেয়া হয়েছে যে অন্তত একমাস তাকে ডিজনির পশুদের নিয়ে কার্টুন ‘ব্যাম্বি’ দেখতে হবে।

এটা পরিষ্কার নয় যে, এই জনপ্রিয় কার্টুন তার ভেতর পশুদের জন্য ভালোবাসা তৈরি করতে পারবে কিনা?

২. গাধার সাথে হাটতে হবে

২০০৩ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগোর নাগরিক জেসিকা ল্যাঞ্জ এবং ব্রায়ান প্যাট্রিক নামক ১৭ বছর বয়সী দুই কিশোরকে ৪৫দিনের কারাদণ্ডের সাজা দেওয়া হয়। সেই সাথে তাদের শহরের কেন্দ্রস্থলে একটি গাধার সঙ্গে হাঁটার আদেশ দেয়া হয়। গাধার সঙ্গে হাটার সময় তাদের একটি সাইনবোর্ড বহন করতে হবে, যেখানে লেখা থাকবে ‘ এ ধরণের বোকার মতো অপরাধ করার জন্য দুঃখিত’।

শহরে অবস্থিত একটি চার্চের ক্রিসমাসের পূর্বের দিন শিশু যিশু খৃস্টের একটি মূর্তি চুরি ও নষ্ট করার অভিযোগে তাদের এই সাজা দেয়া হয়েছিল।

৩. চার্চে দশ বছর কাটাতে হবে

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওকলাহোমা অঙ্গরাজ্যের একটি হাইস্কুলের শিক্ষার্থীকে গাড়ি চালিয়ে মানুষ হত্যার অভিযোগে কারাগারের বাইরে আটকাদেশের নির্দেশ দেয়া হয়েছিল।

১৭ বছরের টেইলর আলফ্রেড মদ্যপান করে সেই সময় মদ্যপান করে গাড়ি চালাচ্ছিলেন।এই দুর্ঘটনায় তার একজন সহপাঠী ও নিহত হয়।

তার সাজার মধ্যে যে বিষয় গুলো অন্তর্ভুক্ত ছিল:

  • অবশ্যই স্কুল থেকে ডিগ্রি গ্রহণ করতে হবে।
  • কারিগরি শিক্ষার ডিগ্রি নিতে হবে।
  • একবছর মাদক, মদ বা নিকোটিনের নিয়মিত পরীক্ষা দিতে হবে।
  • হাতে মাদক ও নিকোটিনের ব্রেসলেট পড়তে হবে।
  • ক্ষতিগ্রস্তদের সভায় যেতে হবে।
  • আগামী দশ বছর নিয়মিত চার্চে অবশ্যই অংশ নিতে হবে।

৪. চাকরি খুঁজে নিতে হবে

ইউরোপ মহাদেশের স্পেনের একটি শহর আন্দালুসিয়ায় একজন ব্যক্তি তার পিতা-মাতা কে আদালতে হাজির করেছিল, কারণ জনৈক ব্যাক্তির অভিভাবকবৃন্দ তার হাতখরচ দেয়া বন্ধ করে দিয়েছিল। ২৫ বছর বয়সী সেই যুবক তার বাবা-মায়ের কাছে হাতখরচ বাবদ ৩৫৫ পাউন্ড দাবি করে। তবে পারিবারিক আদালতের বিচারক আদেশ দেন যে, পরবর্তী ৩০ দিনের মধ্যে নিজের বাসা নিতে হবে এবং স্বাবলম্বি হতে হবে।

৫. ক্লাসিক্যাল সঙ্গীত শুনতে হবে

২০০৮ সালে ব্রিটেন এর অ্যান্ড্রু ভিক্টরকে গাড়িতে উচ্চ স্বরে র‍্যাপ সঙ্গীত বাজানোর অভিযোগে ১২০ পাউন্ড জরিমানা করা হয়। তবে বিচারক তাকে প্রস্তাব দেন, যদি তিনি বিশ ঘণ্টা বিটোভেন, বাচ এবং চোপিনের ক্লাসিক্যাল সঙ্গীত শুনে কাটাতে পারেন, তাহলে তার জরিমানা কর্তন করে ৩০ পাউন্ড করা হবে।

এই ধরণের সাজার মূল উদ্দেশ্য ছিল; বিচারক চাইছিলেন, ভিক্টর বুঝতে পারুক যে ধরণের সঙ্গীত সে পছন্দ করে না, তা জোর করে শুনতে কেমন লাগে? অবশ্য ভিক্টর কেবল ১৫ মিনিট সেই সঙ্গীত শুনতে সক্ষম হয়েছিল। যদিও সে দাবি করেছিল, তার প্রস্তান করার পিছনে কারণ ছিল সে তার বাস্কেটবল অনুশীলনে উপস্থিত থাকতে চেয়েছিল।

 

 

Please follow and like us:

Post Reads: 76 Times

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *